বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্র (বিটাক) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বিটাক চট্টগ্রাম, খুলনা ও বগুড়া কেন্দ্রে নারী হোস্টেল স্থাপন শীর্ষক প্রকল্প

 

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিল্প মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্র (বিটাক) এর বর্তমানে ঢাকা (১৯৬২), চট্টগ্রাম (১৯৭২), চাঁদপুর (১৯৭৮) ও খুলনা (১৯৮৬) এবং বগুড়ায় (২০০৬) পাঁচটি কেন্দ্র বিদ্যমান আছে। অন্যান্য তিনটি বিভাগ তথা, রংপুর, বরিশাল এবং সিলেট বিভাগে বিটাকের কোন কেন্দ্র নেই। রংপুর, বরিশাল এবং সিলেট বিভাগে বিটাকের নতুন তিনটি কেন্দ্র স্থাপনের জন্য জমি  অধিগ্রহণের কাজ চলছে।

 

বাংলাদেশের বিপুল জনগোষ্ঠির প্রায় ৪৯% নারী। এই বিপুল সংখ্যক নারীদের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ছাড়া এ দেশের দারিদ্র্যতা হ্রাস করা সম্ভব নয়। বর্তমান বিশ্বে উদ্যোক্তা সৃষ্টি, নতুন নতুন প্রযুক্তির আয়ত্বকরণ ও প্রয়োগের মূল চালিকা শক্তি হলো কারিগরি বিদ্যা। কাজেই নতুন নতুন কারিগরি বিদ্যা অর্জন ও দক্ষতা বৃদ্ধি না করা হলে দেশের সমগ্রীক আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নয়ন অসম্ভব। বিগত দুই দশক ধরে সরকার নারীদের উন্নয়নে বিভিন্ন ধরণের পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। এর মধ্যে ডিগ্রী/স্নাতক পর্যন্ত নারীদের বিনামূল্যে পড়াশুনার সুযোগ সৃষ্টি করা অন্যতম। এ সুযোগ সৃষ্টির মাধ্যমে শিক্ষিত নারীদের হারও অনেকাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে শুধমাত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষাই দক্ষ জনশক্তি তৈরি করতে পারে না। তার জন্য বিভিন্ন ধরণের কারিগরি শিক্ষার প্রয়োজন রয়েছে। এছাড়াও সমাজের দারিদ্র্য অবহেলিত স্বল্প শিক্ষিত নারীদের উন্নয়ন করা হলে দেশের জিডিপি বৃদ্ধি পাবে এবং বিভিন্ন অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে নারীদের অংশগ্রণের ফলে নিজেদের জীবন ধারা পরিবর্তনসহ সমাজে এগিয়ে আসার সাহস বৃদ্ধি পাবে।

 

বাংলাদেশ ইতোমধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে পর্দাপণ করেছে। উন্নয়নে ধারা অব্যাহত রাখতে পারলে আগামী ২০২১ সালের মধ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে পরিণিত হবে। টেকশই উন্নয়ন অর্জন এর লক্ষ্যে বিটাক কনভেনশনাল ও কম্পিউটারাইজড নিউমেরিক্যাল কন্ট্রোল (সিএনসি) মেশিন টুলস এর মাধ্যমে মেটাল শেপিং, ধাতব ঢালাই, হিট ট্রিটমেন্ট, ইলেক্ট্রোপ্লেটিং, বৈদ্যুতিক রক্ষণাবেক্ষণ, ফেব্রিকেশন, প্রোগ্রাম্যাবল লজিক কন্ট্রোল (পিএলসি), বয়লার রক্ষণাবেক্ষণ ইত্যাদির উপরে বাজারের চাহিদা অনুযায়ী প্রশিক্ষণ প্রদান করার মাধ্যমে দক্ষ লোকবল সরবরাহ করে অতীব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

 

দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্র (বিটাক) এর ৩টি কেন্দ্রে ৩টি মহিলা হোস্টেল স্থাপনের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র ২৪-০৯-২০১৪ তারিখ শিল্প মন্ত্রণালয় পরিদর্শনকালীন নির্দেশনার অনুসরণে “বিটাক, চট্টগ্রাম, খুলনা ও বগুড়া কেন্দ্রে নারী হোস্টেল স্থাপন” শীর্ষক প্রকল্পটি গত ০৪-০৭-২০১৮ তারিখে পরিকল্পনা কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছে। প্রকল্পের মেয়াদ জুলাই ২০১৮ হতে জুন ২০১৯ পর্যন্ত। প্রকল্পটি সম্পূর্ণ জিওবি-র অর্থায়নে বাস্তবায়িত হবে। প্রকল্পের মোট অনুমোদিত ব্যয় ৩১৬০.৯৯ (একত্রিশ কোটি ষাট লক্ষ নিরানব্বই হাজার) টাকা।

 

 

 


Share with :

Facebook Facebook